পেনাল্টি, হ্যান্ডবল ও খেলোয়াড় বদলের নিয়মে আসছে পরিবর্তন

পেনাল্টি, হ্যান্ডবল ও খেলোয়াড় বদলের নিয়মে বেশ কিছু পরিবর্তন আনার পক্ষে মত দিয়েছে ফুটবল খেলার নিয়মসমূহের নির্ধারক ‘ইন্টারন্যাশনাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি)’। আগামী ৬ নভেম্বর এসব বিষয়ে নিয়ে বিস্তারিত আলোচনায় বসবে আইএফএবি। সেখানে প্রতিটি নতুন নিয়মের সমালোচনা, বিতর্ক, সংযোজন কিংবা পরিমার্জনের সুযোগ থাকবে। আসন্ন সভায় ফলপ্রসু আলোচনা হলে আগামী মার্চে নিয়ম পরিবর্তনের বিষয়টি আইএফএবি এর বার্ষিক সভায় প্রস্তাব আকারে উত্থাপন করা হবে।

যেসব পরিবর্তন আনার সিদ্ধান্ত হয়েছে :

পেনাল্টি কিকে কোনো ‘রিবাউন্ড’ থাকবে না :
বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী পেনাল্টি কিক নেওয়ার পর গোলরক্ষক বল ফিরিয়ে দিলে কিংবা বারে লেগে বল ফিরে আসলে সেই বলে আবার কিক দিয়ে গোল করা যায়। কিন্তু নতুন নিয়মে সেটা থাকছে না। বল গোলরক্ষক ফিরিয়ে দিলে কিংবা বারে লেগে ফিরে আসলে ‘ডেড বল’ হিসেবে গণ্য হবে এবং গোলকিক দেওয়া হবে।

ইচ্ছাকৃত হ্যান্ডবলের ‘ইচ্ছাকৃত’ শব্দটি থাকছে না :
বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী কোনো খেলোয়াড় ইচ্ছাকৃতভাবে হাত দিয়ে বল ফেরালে কিংবা হাতে বল লাগালে ‘হ্যান্ডবল’ হচ্ছে এবং পেনাল্টি কিংবা ফ্রি কিক দেওয়া হচ্ছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী এই ইচ্ছকৃতভাবে শব্দটিকে বাদ দেওয়ার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। কারণ এই ইচ্ছাকৃত শব্দটি প্রমাণ করতে বেশ ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে। কখনো পক্ষে যাচ্ছে, কখনো বিপক্ষে যাচ্ছে। আইএফএবি তাই নিয়ম করতে চাচ্ছে তখনই হ্যান্ডবল দেওয়া হবে যদি কোনো খেলোয়াড়ের হাত ‘আনন্যাচারাল পজিশন’ অর্থাৎ অস্বাভাবিক অবস্থানে থাকে। অবশ্য এক্ষেত্রে এই ‘অস্বাভাবিক পজিশন’ নির্ধারণেও ঝামেলায় পড়তে হবে রেফারিদের। সেক্ষেত্রে আক্রমণভাগের খেলোয়াড়দের ইচ্ছাকৃতভাবে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের বাহু কিংবা হাতে বল মেরে দেওয়ার প্রবণতা বেড়ে যেতে পারে। দেখার বিষয় সভায় এই নিয়মে কী সংশোধন কিংবা সংযুক্তি আসে।

খেলোয়াড় বদলিতে সময় কমানো :
বর্তমানে একজন খেলোয়াড় বদল করতে বেশ সময় নষ্ট হয়। কারণ যাকে মাঠ থেকে উঠিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তিনি মাঠের ওই প্রান্তে থাকলে আস্তে আস্তে হেঁটে আসেন। তারপর মাঠে নামতে যাওয়া খেলোয়াড়ের সঙ্গে কোলাকুলি করেন। হাত মেলান। পিঠ চাপড়ে দেন। এতে করে বেশ খানিকটা সময় নষ্ট হয়। তাই খেলোয়াড় বদলিতে সময় কমানোর জন্য মাঠ থেকে যে খেলোয়াড়কে উঠিয়ে আনার সিদ্ধান্ত হবে তিনি তার নিকটতম টাচ-লাইন দিয়ে মাঠের বাইরে  যাবেন এবং নিজেদের ডাগআউটে চলে আসবেন। এক্ষেত্রে মাঠে নামতে যাওয়া খেলোয়াড়ের সঙ্গে কোলাকুলি কিংবা হাত মেলানোর বিষয়টি থাকছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 5 =