দুই কোরিয়ার ‘নতুন ভবিষ্যতের’ ঘোষণা কিম ও মুনের

দুই কোরিয়া ‘নতুন ভবিষ্যতে’ পা রাখতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং ‍উন।

বুধবার পিয়ংইয়ংয়ে দুই দেশের নেতা বেশ কয়েকটি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

সমঝোতায় স্বাক্ষরের পর উত্তর কোরিয়া সফররত মুন জায়ে-ইন বুধবার এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘দুই পক্ষ পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ অর্জনের লক্ষ্যে একটি সমঝোতায় স্বাক্ষর করেছে।’

কিম জং ‍উন উত্তর কোরিয়ার একটি মূল ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপণ কেন্দ্র বন্ধ করে দিতে সম্মত হয়েছেন বলে দক্ষিণের প্রেসিডেন্ট জানান।

মুন বলেন, ‘উত্তর কোরিয়া তংচ্যাং-রি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ও উৎক্ষেপণ কেন্দ্র দুই দেশের বিশেষজ্ঞদের উপস্থিতিতে স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিতে সম্মত হয়েছে।’

এ ছাড়া, দুই নেতা দুই দেশের মধ্যে রেল যোগাযোগ স্থাপন, কোরিয়া যুদ্ধ দ্বারা বিচ্ছিন্ন পরিবারদের মিলন ও স্বাস্থ্য খাতে সহায়তার ব্যাপারে একমত হন।

দুই নেতা জানান, তারা ২০৩২ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক একসঙ্গে আয়োজনের চেষ্টা করবেন।

দুই দেশের সেনাপ্রধানরা তাদের মধ্যে সামরিক উত্তেজনা কমাতে সমঝোতায় স্বাক্ষর করেছেন বলেও জানান কিম জং উন ও মুন জায়ে-ইন।

এসব সমঝোতাকে কোরীয় উপদ্বীপে সামরিক শান্তি অর্জনে একটি ‘উল্লেখ্যযোগ্য পদক্ষেপ’ বলে অভিহিত করেন কিম।

সংবাদ সম্মেলনে কিম জানান, তিনি মুন জায়ে-ইনকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে, খুব শিগগিরই সিউল সফর করবেন। যদি তাই হয়, এটি তবে উত্তর কোরিয়ার প্রথম কোনো নেতার দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সফর।

তথ্য : বিবিসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + 10 =