পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকা

তৈরি পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি আট হাজার টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার।

আগামী ডিসেম্বরে প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে নতুন বেতন কার্যকর হবে।

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে নতুন মজুরি কাঠামোর ঘোষণা দেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি হবে ৮ হাজার টাকা। এর মধ্যে বেসিক ৪ হাজার ১০০ টাকা, বাড়ি ভাড়া ২ হাজার ৫০ টাকা এবং অন্যান্য ১ হাজার ৮৫০।

এর আগে সচিবালয়ে শ্রম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মজুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান সিনিয়র জেলা জজ সৈয়দ আমিনুল ইসলাম, বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, শ্রমিক প্রতিনিধি ফজলুল হক মন্টু ও বেগম শামছুন্নাহার ভূঁইয়ার সঙ্গে বৈঠক করেন।

বৈঠকে জানানো হয়, প্রতি ৫ বছর পর পর বেতন পুনর্মূল্যায়ন করার কথা। সে হিসেবে, আগামী ডিসেম্বরের আগের বেতনের পর ৫ বছর পূর্ণ হবে।

মজুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বলেন, এর আগে ৪টি বৈঠকে ঐক্যমতে আসতে না পারায় উভয়পক্ষ প্রধানমন্ত্রীর কাছে যান। সেখানে প্রধানমন্ত্রী উভয়পক্ষের কথা শুনে ৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করেন। এর আগের বৈঠকে মালিকপক্ষ ন্যূনতম মজুরি ৭ হাজার টাকা আর শ্রমিকপক্ষ ১২ হাজার ২০ টাকা করার দাবি করে।

বৈঠকে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, বৈদেশিক মুদ্রার ৮৪ শতাংশ অর্থ আয় করে তৈরি পোশাক খাত। মালিক ও শ্রমিকপক্ষের কথা শুনে তিনি সুষ্ঠু সমাধান দিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রমিকবান্ধব প্রধানমন্ত্রী সবদিক বিবেচনা করেই এই সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।

এর আগে রাজধানীর তোপখানা রোডে ন্যূনতম মজুরি বোর্ডের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে বোর্ডের ৫ম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে মালিক ও শ্রমিক পক্ষ সিদ্ধান্ত নেয়। এরপরেই তারা মন্ত্রণালয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জমা দেন।

এবার মজুরি বোর্ড গঠনের পর শ্রমিক সংগঠনগুলো ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা দাবি করে আসছিলেন। এর বিপরীতে পোশাক শিল্প মালিকরা ৬ হাজার ৩৬০ টাকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × two =