অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও হয়রানি বন্ধের দাবি

ঈদযাত্রায় সব পথে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও পদে পদে হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

রোববার বিকেলে সংগঠনটির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

তিনি বলেন, সারা দেশে ঈদযাত্রা পর্যবেক্ষণ কর্মসূচিতে নিয়োজিত আমাদের স্বেচ্ছাসেবক টিম গত কয়েক দিন ধরে রাজধানীসহ বিভিন্ন বাস কাউন্টার, লঞ্চ টার্মিনাল, রেলস্টেশন, বিমান টিকিট বুকিং পরিস্থিতি সরেজমিন পরিদর্শন করে ঈদযাত্রায় দেশের সড়ক ও নৌপথে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়, ঝুঁকিপূর্ণ অতিরিক্ত যাত্রী বহনসহ পথে পথে যাত্রী সাধারণের চরম ভোগান্তির চিত্র দেখতে পেয়েছে। বিভিন্ন স্থানে রাস্তাঘাট ভাঙ্গা, যাত্রী আছে পরিবহণ নেই, অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ে নৈরাজ্যসহ নানা অনিয়মের মধ্যে চলছে পরিবহন ব্যবস্থা।

মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ঈদযাত্রায় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য বন্ধ করা না গেলে ফিটনেসবিহীন যানবাহন ও পণ্যবাহী পরিবহনে নিম্নআয়ের লোকজনের যাতায়াত কোনোভাবেই ঠেকানো যাবে না। এতে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানির ঝুঁকি বাড়বে।

‘গণপরিবহন সংকটের কারণে ও কম ভাড়ার আশায় নিম্নআয়ের লোকজন ফিটনেসবিহীন এসব যানবাহন, পণ্যবাহী যানবাহন, বাস-ট্রেন ও লঞ্চের ছাদে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও বিআরটিএ ও বিআইডব্লিউটিএর মনিটরিং কমিটি গঠন করা হলেও ঈদযাত্রার যাত্রীসাধারণের বাস, লঞ্চ ও বিমানের টিকিট দ্বিগুণ কোনো কোনো ক্ষেত্রে তিন গুণ দামে কিনতে হচ্ছে,’ বলেন তিনি।

সংগঠনের মহাসচিব আরো বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার যাত্রী হয়রানি ও সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়ার সত্ত্বেও অল্প সময়ে বিশাল যাত্রীবহর সামাল দেওয়ার মতো জনবল বা প্রয়োজনীয় যানবাহন না থাকায় প্রতিবছর ঈদযাত্রায় ভোগান্তি, হয়রানি, ভাড়া নৈরাজ্য, সড়ক দুর্ঘটনাসহ নানাভাবে যাত্রী সাধারণ হয়রানির শিকার হয়ে আসে। প্রতি বছর ঈদে গণপরিবহণ সংকটকে পুঁজি করে ঘটে থাকে নানা অনিয়ম, বিশৃঙ্খলা ও হয়রানি বাণিজ্য। প্রকৃতপক্ষে, গণপরিবহনের চাহিদার বিপরীতে বিশাল ঘাটতি সামাল দিতে গিয়ে আমাদের সরকার, প্রশাসন, মালিক সমিতি, শ্রমিক সমিতির নেতৃবৃন্দকে গলদঘর্ম হতে হয়।

দেশের প্রায় প্রতিটি মহাসড়কে চলমান উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ, বিভিন্ন মহাসড়কে রাস্তার মাঝে প্রবল বর্ষণের কারণে সৃষ্ট গর্ত, ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে নির্মাণাধীন ফ্লাইওভার, বিভিন্ন রোডের বিভিন্ন স্পটে রাস্তার ওপর বসা হাট-বাজার, মহাসড়কে চলাচলকারী অটোরিকশা, ব্যাটারি চালিত রিকশাসহ অযান্ত্রিক যান এবারের ঈদযাত্রায় যানজট বাড়াচ্ছে।

নৌ-পথেও ওভারলোড কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করা না হলে দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ব্যাপক আশঙ্কা বিরাজমান। অতিরিক্ত ভাড়া ও যাত্রীসহ বিরাজমান অনিয়ম-হয়রানি বন্ধ করে যাত্রীসাধারণের নিরাপদ ঈদযাত্রা নিশ্চিত করতে সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান সমিতির মহাসচিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 + six =