পোকামাকড় কামড়ের সেরা চিকিৎসা

বিভিন্ন ধরনের পোকামাকড়ের কামড়ে আপনার ব্যথা ও চুলকানি হতে পারে। এ প্রতিবেদনে কিছু সর্বাধিক কমন পোকামাকড়ের কামড়ের ঘরোয়া চিকিৎসা সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

* মৌমাছির বা ভিমরুলের কামড়
মৌমাছি বা ভিমরুলের হুল ফোটার ব্যথা হ্রাস করতে আপনাকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে। ডক্টর অন ডিমান্ডের চিকিৎসক হিদার হাউথর্ন বলেন, ‘ইনজেক্টেড বিষের পরিমাণ এবং শরীরে বাহ্যিক প্রতিক্রিয়া কমাতে তাড়াতাড়ি হুল দূর করা গুরুত্বপূর্ণ, যদিও এসব বিরল।’ তিনি যোগ করেন, ‘হুল ফোটার স্থানে সাবান ও পানি দিয়ে ধোয়া নিশ্চিত করুন এবং তারপর ব্যথা ও ফোলা হ্রাস করতে দ্রুত ২০ মিনিট ধরে ঠান্ডা সেঁক অর্থাৎ আইস প্যাক প্রয়োগ করুন। সাধারণত প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে ব্যথা, ফোলা ও লালতা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ওভার-দ্য-কাউন্টার ওষুধ ইবুপ্রোফেন (যেমন- অ্যাডভিল) যথেষ্ট। বেনারডিল এক্সট্রা স্ট্রেংথ ইচ রিলিফ স্টিকের মতো টপিক্যাল অ্যান্টিহিস্টামিন যেকোনো ধরনের চুলকানি ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণ করে।’ সেকেন্ডারি ব্যাকটেরিয়াল স্কিন ইনফেকশনর লক্ষণ দেখা যায় কিনা লক্ষ্য রাখা গুরুত্বপূর্ণ, যা যেকোনো প্রকার পোকার হুল ফোটা বা কামড়ের পরে হতে পারে। উপসর্গের মধ্যে লালতা, পুঁজ নিঃসরণ হওয়া অথবা ব্যথা বেড়ে যাওয়া অন্তর্ভুক্ত, এসব উপসর্গ সাধারণত হুল ফোটার তিন থেকে পাঁচদিন পর দেখা দেয়, যার মেডিক্যাল অ্যাটেনশন প্রয়োজন।

* এঁটেলের কামড়
টিক বা এঁটেল পোকা মারাত্মক রোগ লাইম ছড়ানোর জন্য পরিচিত। আপনার প্রথম পদক্ষেপ হবে টুইজার দিয়ে এঁটেল পোকা তুলে ফেলা এবং আপনার চিকিৎসককে দেখানোর জন্য এটিকে অ্যালকোহল-পূর্ণ কন্টেইনারে সংরক্ষণ করা। কামড়ের স্থানে অ্যালকোহল দিয়ে চিকিৎসা করুন এবং ষাঁড়ের চোখের আকৃতির র‌্যাশ অথবা ফ্লুর মতো উপসর্গ হয় কিনা লক্ষ্য রাখুন, যা লাইম রোগের নির্দেশ করতে পারে। নিশ্চিত হোন যে ভালো টুইজার ব্যবহার করছেন।

* ছারপোকার কামড়
যদি আপনার শরীরের ওপর ওয়েল্টের জিগজ্যাগ প্যাটার্ন দেখেন, তাহলে তা ছারপোকার কামড়ের ফল হতে পারে। আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব ডার্মাটোলজির মতে, সাবান ও পানি দিয়ে ধোয়া এবং ওভার-দ্য-কাউন্টার ওষুধ কোর্টিস্টেরয়েড ক্রিমের ব্যবহার এটিকে আরো অবনতির দিকে যাওয়া থেকে রক্ষা করবে, যদিও কামড়ের স্থানে কোনো ইনফেকশন অথবা অ্যালার্জিক প্রতিক্রিয়া বিকশিত হয়ে থাকে, তাহলে আপনাকে অ্যান্টিবায়োটিক অথবা অ্যান্টিহিস্টামিন প্রেসক্রাইব করা হতে পারে।

* মশার কামড়
মশার কামড় উপেক্ষা করা খুব একটা সহজ ব্যাপার নয়। একটি গবেষণা সাজেস্ট করছে যে, জিরটেক ওষুধ সামান্য পরিমাণ গ্রহণ মশার কামড় কমাতে সাহায্য করতে পারে। ডা. হাউথর্ন বলেন, ‘সার্না সেনসিটিভ লোশনের মতো প্রামোক্সাইন সমৃদ্ধ ওভার-দ্য-কাউন্টার প্রোডাক্ট চুলকানি নিয়ন্ত্রণে ভালো কাজ করে।’

* বেলেমাছির কামড়
ডা. হাউথর্ন বলেন, ‘বেলেমাছি ক্ষুদ্র হতে পারে, কিন্তু তাদের কামড়ে শক্তিশালী প্রতিক্রিয়া হয়, যা বিরক্তিকর ব্যথা ও চুলকানি সৃষ্টি করে। বরফ হচ্ছে এ ধরনের ব্যথা কমানোর ভালো উপাদান। এ ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করতে কামড়ের স্থানে দিনে কয়েকবার বৃত্তাকার ভাবে আইস কিউব ঘষুন। চুলকানি নিয়ন্ত্রণের জন্য অ্যান্টিহিস্টামিন ব্যবহার করুন।’ আপনি পুনর্ব্যবহারযোগ্য আইস প্যাকও ব্যবহার করতে পারেন।

* মাকড়সার কামড়
অধিকাংশ মাকড়সার কামড়ে সামান্য ব্যথা ও ফোলা সৃষ্টি হয়, যা আইস প্যাক ও ইবুপ্রোফেনের মতো ওভার-দ্য-কাউন্টার ওষুধের সাহায্যে চিকিৎসা করা যায়। যদি আপনাকে কোনো ব্রাউন রিক্লুস মাকড়সা কিংবা ব্ল্যাক উইডো মাকড়শা কামড়ায় অথবা যদি কামড়ের স্থানে তীব্র ব্যথা বা পেটে ক্র্যাম্পিং অনুভব করেন, তাহলে জরুরি মেডিক্যাল সেবা অনুসন্ধান করুন।

* মাছির কামড়
ডা. হাউথর্ন বলেন, ‘সকল পোকার কামড় ও হুল ফোটানো একই জাতীয় প্রদাহমূলক প্রতিক্রিয়ার দিকে ধাবিত করে। তাই যাই আপনাকে কামড়াক বা হুল ফোটাক না কেন, ব্যথা ও ফোলার জন্য ইবুপ্রোফেন ও বরফ চমৎকার, যেখানে বেনাড্রিল অথবা জিরটেকের মতো অ্যান্টিহিস্টামিন সাধারণত যেকোনো চুলকানি নিয়ন্ত্রণে ভালো কাজ করে। অধিকাংশ লোকাল রিয়্যাকশন কোনো চিকিৎসা ব্যতীত চলে গেলেও তীব্র অ্যালার্জিক রিয়্যাকশন ও ব্যাকটেরিয়াল স্কিন ইনফেকশনের উপসর্গ প্রকাশ পায় কিনা লক্ষ্য রাখা গুরুত্বপূর্ণ, যার মেডিক্যাল সেবা প্রয়োজন।’

* লাল পিঁপড়ার কামড়
টেক্সাস এ অ্যান্ড এম ইউনিভার্সিটির এন্টোমোলজিস্ট বাস্তিয়ান এম. দ্রিসের মতে, ‘সাধারণ বরফ, অ্যান্টিহিস্টামিন ও ইবুপ্রোফেন পদ্ধতি ছাড়াও ব্লিচ দিয়ে আপনি লাল পিঁপড়ার কামড়ের চিকিৎসা করতে পারেন: ব্যথা উপশমের জন্য অর্ধেক ব্লিচ ও অর্ধেক পানির সল্যুশনের মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন।’

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 − two =