জেনে নিন কেন পুরুষের চেয়ে বেশি দিন বাঁচেন নারীরা

জৈবিকভাবেই পুরুষের চেয়ে শক্তিশালী নারীরা। সঙ্গত কারণে বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গীদের চেয়ে বেশি দিন বাঁচেন তারা।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, শুধু স্বাভাবিক জীবনযাপন প্রক্রিয়াতেই পুরুষের চেয়ে বেশি দিন বাঁচেন না নারীরা। অধিকন্তু মহামারী, দুর্ভিক্ষ ও প্রাকৃতিক দুর্যোগময় পরিবেশেও পুরুষের চেয়ে বেশি দিন বাঁচেন তারা। অর্থাৎ পুরুষের চেয়ে নারীরা গড়ে ছয় মাস থেকে চার বছর বেশি বাঁচেন।

নারীদের আয়ু বেশি হওয়ার নেপথ্যে কতগুলো কারণ উল্লেখ করেছেন গবেষকরা। তাদের যুক্তি- ‘প্রতিকূল পরিবেশে কীভাবে সারভাইভ (বাঁচতে) করতে হয় তা শৈশবেই আয়ত্ত করে ফেলেন মেয়েরা। জিন বা হরমোনজনিত কারণেও দীর্ঘায়ু লাভ করেন তারা। তাদের শরীরে প্রবাহিত হয় এস্ট্রোজেন নামক হরমোন। এটি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে অতিরিক্ত জীবনীশক্তি দান করে।’

গবেষণায় আমলে নেয়া হয় ২৫০ বছরের মৃত্যুহার। গবেষক দলের প্রধান ও যুক্তরাষ্ট্রের ডিউক ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক ভার্জিনিয়া জারুলি বলেন, ‘দুই লিঙ্গের আয়ুর পার্থক্য নির্ণয়ে আমাদের গবেষণাটি অনন্য।’

গবেষণা প্রবন্ধটি প্রসিডিং অব ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব সায়েন্স জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

নারী-পুরুষ কে কখন মোটা হয়??

মানব জীবনে বিয়ে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। এই বিয়ে সঙ্গে আমাদের মানসিক, পারিবারিক, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক দিকগুলো জড়িয়ে রয়েছে। সেই সঙ্গে জড়িয়ে আছে ওজন বাড়া কমার বিষয়টিও! সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, নারীদের বিয়ের পর ওজন বাড়ে। আর পুরুষের ওজন বাড়ে বিবাহ বন্ধন থেকে মুক্ত হওয়ার পর। মানে বিবাহ বিচ্ছেদের পর। দীর্ঘ ২২ বছর ১০ হাজারের বেশি দম্পতির ওপর গবেষণা চালিয়ে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

গবেষণায় দেখা যায়, ৩০ বছরের পর নারী এবং পুরুষদের মধ্যে ওজন বাড়া বা কমার তেমন পরিবর্তন না হলেও বিয়ের পর এবং বিবাহ বিচ্ছেদের পর ৫০ বছর পর্যন্ত ওজন বেড়ে যায়। ওহিও স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক দিমিত্রি তুমিনের নেতৃত্বে এ গবেষণা পরিচালনা করা হয়।

দিমিত্রি বলেন, বৈবাহিক সম্পর্ক পরিবর্তনের ফলে নারী ও পুরুষের ওজনের পার্থক্য পরিষ্কারভাবেই চোখে পড়ে। এর কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন, নারীরা বিয়ের পর বেশ ফুরফুরে মেজাজে থাকেন এবং তারা নিজেদের রূপসৌন্দর্য রক্ষা এবং ফিগার মেইনটেনের বিষয়টি অনেক ক্ষেত্রেই অবহেলা করেন।

আর পুরুষদের বিবাহ বিচ্ছেদের পরে মুটিয়ে যাওয়ার কারণ, একটি সংসারে বিবাহ বিচ্ছেদের আগে চরম অশান্তি দেখা দেয়।দেখা যায় ছোট ছোট বিষয় নিয়ে অশান্তি তৈরি হয়। এ কারণে বিবাহ বিচ্ছেদের পর পুরুষ মনে মনে নিজেকে মুক্ত অনুভব করে।

তবে স্ত্রীরা পুরুষদের নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপনে উৎসাহিত করেন। বিচ্ছেদের পর দেখভালের অভাবে, অনিয়ন্ত্রিত জীবন যাপনের ফলেও পুরুষ মোটা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − fourteen =