পেজ পরিচালকের পরিচয় যাচাই করবে ফেসবুক

বিগত কয়েক বছর ধরে ফেসবুকে সবচেয়ে বড় সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে ভুয়া খবর ও গুজব ছড়ানোর প্রবণতা। এর ফলে বিভিন্ন দেশে একাধিকবার সাময়িক সময়ের জন্য নিষিদ্ধও হয়েছিল ফেসবুক। দাবানলের মতো ফেসবুকে ভুয়া খবর ও গুজব ছড়িয়ে পড়ায় সামাজিক এবং রাজনৈতিক অস্থিরতা বেড়ে চলেছে।

ভুয়া খবর ঠেকাতে ইতিমধ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে সোশ্যাল জায়ান্ট সাইটটি। তারই ধারাবাহিকতায় এবার ফেসবুক পেজগুলোর ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ।

৭ এপ্রিল, নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে জাকারবার্গ জানান, ফেসবুক প্ল্যাটফর্মে জনপ্রিয় সব পেজ যারা পরিচালনা করেন, তাদের পরিচয় যাচাই করা হবে। ভুয়া খবর এবং গুজব ঠেকানোর উদ্যোগের অংশ হিসেবেই এ পদক্ষেপ। সকল বড় পেজগুলোকে নিরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। যেসব পেজ মালিক পরিচয় নিশ্চিত করবে না, ফেসবুকে তাদের কোনো পোস্ট দিতে দেওয়া হবে না।

ফেসবুকে যারা পরিচয় গোপন করে ভুয়া অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে পেজ পরিচালনা করে তাদের ঠেকাতেই এ পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

এছাড়া রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের ব্যাপারেও কঠোর পদক্ষেপের কথা জানিয়েছেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা। তিনি জানান, ফেসবুকে যারা রাজনৈতিক এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বিজ্ঞাপন দিতে চান, তাদের এখন থেকে নিরীক্ষা প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। বিজ্ঞাপনদাতাদের প্রকৃত পরিচয় এবং অবস্থান জানাতে হবে। বর্তমানে এই নিয়ম যুক্তরাষ্ট্রের জন্য প্রযোজ্য এবং আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বিশ্বব্যাপী এই নিয়ম চালু করা হবে।

তিনি আরো উল্লেখ করেন, ফেসবুকে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের স্বচ্ছতায় একটি নতুন টুল তৈরি করা হয়েছে, এই টুলটি কোনো পেজে থাকা সব বিজ্ঞাপনগুলো সকলের সামনে প্রদর্শন করবে। বর্তমানে এটি কানাডায় পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হয়েছে এবং এই গ্রীষ্মে বিশ্বব্যাপী চালু করা হবে।

ফেসবুকের পেজগুলোর পরিচালকদের পরিচয় যাচাই এবং রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনদাতাদের পরিচয় যাচাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা জন্য আরো কয়েক হাজার কর্মী নিয়োগ করা হবে বলে জানান জাকারবার্গ। চলতি বছর এবং আগামী বছরে যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো, ব্রাজিল, ভারত, পাকিস্তান সহ আরো কয়েকটি দেশে নির্বাচন উপলক্ষে ভুয়া খবর ও অপপ্রচার ঠেকাতে নতুন এই দুইটি পদক্ষেপ বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করেন তিনি।

জাকারবার্গ বলেন, ২০১৬ সালে মার্কিন নির্বাচনে ফেসবুক ব্যবহার করে রাশিয়ান হস্তক্ষেপের ঘটনার পর; ২০১৭ সালে ফ্রান্স ও জার্মানিতে বিশেষ নির্বাচনের সময় নতুন এআই টুল তৈরি করে ১০ হাজারের বেশি ভুয়া অ্যাকাউন্ট অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছে ফেসবুক। চলতি মাসে রাশিয়ান ভুয়া অ্যাকাউন্টের বড় একটি নেটওয়ার্ক চিহ্নিত করে নিস্ক্রিয় করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven − 3 =