অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ নিয়ে সংঘর্ষ : আহত ৪, আটক ৩

অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে বাখরাবাদ গ্যাস কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফেনী পৌরসভার ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনিরের সমর্থকদের সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় চারজন আহত হয়েছে। পুলিশ হামলাকারী সন্দেহে তিনজনকে আটক করেছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চার রাউন্ড গুলি চালায় আনসার সদস্যরা। সোমবার বিকেলে পশ্চিম রামপুরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে ফেনীর পশ্চিম রামপুর এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা ও বাখরাবাদ গ্যাস কর্মকর্তারা।

অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার সময় ফেনী পৌরসভার ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনির ও তার সমর্থকরা ভ্রাম্যমাণ আদালত ও বাখরাবাদ গ্যাস কর্মকর্তাদের বাধা দেয়। একপর্যায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ওপর ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে তারা। পরে পুলিশ হামলাকারীদের ধাওয়া দিলে তারা মহাসড়কের ওপর দাঁড়িয়ে থাকা বাখরাবাদ গ্যাস লিমিটেডের একটি গাড়ি ও ইউনিক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী গাড়ি ভাঙচুর করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সড়ক অবরোধ করে।

পরে আনসার সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চার রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

একপর্যায়ে ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী র‌্যাব ক্যাম্প থেকে সদস্যরা বের হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

মহাসড়ক অবরোধ ও ভাঙচুরের সন্দেহে ফেনী শাহিন একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক শিক্ষকসহ তিনজনকে পুলিশ আটক করে। এ হামলায় বাখরাবাদ গ্যাস সিস্টেম লিমিটেডের গাড়িচালক ও স্টাফসহ চারজন আহত হয়। পরে প্রায় দুই কিলোমিটার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ ঘটনায় কাউন্সিলর মনিরের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট সোহেল রানা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen + three =