ত্রুটি ধরিয়ে আপনিও হয়ে যেতে পারেন কোটিপতি

অ্যাপল, মাইক্রোসফট, গুগল এবং অন্যান্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সেবার নিরাপত্তা ত্রুটি বা দুর্বলতা ধরিয়ে দেয়া এমনই একটি সৃজনশীল কাজ, যা কিনা আপনাকে কোটিপতিও বানিয়ে দিতে পারে।

গুগল, মাইক্রোসফট, অ্যাপল, ফেসবুক এবং অন্যান্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো অনেক শক্তিশালী নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকা সত্ত্বেও প্রায়ই নিরাপত্তা ত্রুটি এবং ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হওয়ার গুরুতর হুমকির সম্মুখীন হয়ে থাকে। তাই তারা তাদের ব্যবহারকারীদের একটি নিরাপদ অভিজ্ঞতা প্রদানের জন্য ক্রমাগত কাজ করছে। এক্ষেত্রে, কখনো কখনো তারা সফটওয়্যার বা হার্ডওয়্যারের নিরাপত্তা ত্রুটি বা হুমকি খুঁজে পেতে সাধারণ লোকের কাছে ফিরে যায়।

আর নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য আর্থিক পুরস্কার দেয়ার এই উদ্যোগগুলো ‘বাগ বাউন্টি প্রোগ্রাম’ হিসেবে পরিচিত। প্রায় সব বড় বড় কোম্পানিরই এ ধরনের প্রোগ্রাম রয়েছে। এ প্রতিবেদনে ১০টি প্রযুক্তি কোম্পানির ‘নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য আর্থিক পুরস্কার দেয়ার প্রোগ্রাম’ এর তথ্য তুলে ধরা হলো।

* অ্যাপল
অ্যাপল সবসময় তাদের গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তা নিয়ে অনেক বেশি সচেতন থাকার চেষ্টা করে। তারপরও কিছু কিছু নিরাপত্তা ত্রুটি মাঝে মাঝেই নিরাপত্তা গবেষকদের চোখে পড়ে। আর এজন্যই এই বৃহৎ প্রযুক্তি কোম্পানিটি তাদের নিরাপত্তা দুর্বলতা ধরিয়ে দেয়ার জন্য আর্থিক পুরস্কার দেয়ার প্রোগ্রামটি চালু রেখেছে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://developer.apple.com/bug-reporting
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ১.৫ কোটি টাকা পর্যন্ত।

গুগল 
গুগল তাদের সেবাগুলোর নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য উল্লেখযোগ্য পরিমাণে আর্থিক পুরস্কার প্রদান করে থাকে। ২০১৭ সাল পর্যন্ত গুগল নিরাপত্তা গবেষক এবং ইথিক্যাল হ্যাকারদের নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য ৩ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার হিসেবে পরিশোধ করেছে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: www.google.com/about/appsecurity/reward-program
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ১.২ কোটি টাকা পর্যন্ত।

* ফেসবুক
আপনি যদি এই সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কটির নিরাপত্তা দুর্বলতাগুলো খুঁজে পেতে পারেন, তাহলে আপনি একটি ভালো অঙ্কের পুরস্কার পেতে পারেন। ২০১৭ সালে পর্যন্ত ফেসবুক নিরাপত্তা গবেষক এবং ইথিক্যাল হ্যাকারদের নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য ৮০০,০০০ ডলার পুরস্কার হিসেবে পরিশোধ করেছে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: www.facebook.com/whitehat
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: কোনো সীমারেখা নির্দিষ্ট করা নেই।

* স্যামসাং
স্যামসাং ইলেকট্রনিক্সের মোবাইল বিভাগ, তাদের স্মার্টফোন এবং ট্যাবলেট ডিভাইসের নিরাপত্তা ত্রুটি এবং দুর্বলতা সংক্রান্ত রিপোর্ট করার জন্য আকর্ষণীয় আর্থিক পুরস্কার প্রদান করে থাকে। তবে আর্থিক পুরস্কার পাবার এই প্রোগ্রামটির জন্য যোগ্যতা অর্জনের আগে কিছু শর্ত অবশ্যই পূরণ করতে হবে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://security.samsungmobile.com/rewardsprogram.smsb
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: প্রায় ১.২ কোটি টাকা পর্যন্ত।

* মাইক্রোসফট 
এই প্রযুক্তি কোম্পানিটি ২০১৪ সাল থেকে নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য আর্থিক পুরস্কার দেয়ার প্রোগ্রামটি চালিয়ে আসছে। কোম্পানিটি তাদের অনলাইন পরিসেবা সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ দুর্বলতা খুঁজে বের করার জন্য পুরস্কার প্রদান করে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন:  https://technet.microsoft.com/en-us/library/dn425036.aspx
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ১.৬ কোটি টাকা পর্যন্ত।

* ইন্টেল
স্পেক্টর ম্যালওয়্যার থেকে নিজেদের রক্ষা করতে এখনও লড়াই করতে হচ্ছে ইন্টেলকে। আর এজন্য তারা তাদের নিরাপত্তা ত্রুটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য আর্থিক পুরস্কার দেয়ার প্রোগ্রামটিকে অনেক বিস্তৃত ভিত্তিতে প্রসারিত করেছে, যাতে করে ত্রুটিগুলো তাদের কাছে স্পট হয়ে ধরা দেয়।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://security-center.intel.com/BugBountyProgram.aspx
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ১.২ কোটি টাকা পর্যন্ত।

* টুইটার
এই সামাজিক যোগাযোগ প্ল্যাটফর্মটি নিরাপত্তা গবেষকদের কাছ থেকে নিরাপত্তা ত্রুটি সংক্রান্ত যেকোনো রিপোর্টকেই স্বাগত জানায়। তাদের পরিষেবাতে সম্ভাব্য নিরাপত্তার দুর্বলতা সম্পর্কে যে কেউ তাদের কাছে রিপোর্ট করতে পারে। সুতরাং আপনি যদি টুইটারে কোনো নিরাপত্তা ত্রুটি খুঁজে পান তবে অবশ্যই তা টুইটারে রিপোর্ট করুন।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://help.twitter.com/en/rules-and-policies/reporting-security-vulnerabilities।​
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ১২.৮ লাখ টাকা পর্যন্ত।

* উবার
অ্যাপভিত্তিক এই পরিবহন কোম্পানিটি গত বছরের শেষ প্রান্তিকে বেশ কিছু সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে। যা হোক, এই কোম্পানিটিরও ত্রুটি ধরিয়ে দেয়া এবং ইথিক্যাল হ্যাকিং এর জন্য একটি আর্থিক প্রণোদনার প্রোগ্রাম রয়েছে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://hackerone.com/uber
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ১২.৮ লাখ টাকা পর্যন্ত।

* ইয়াহু 
আপনি যদি ইয়াহুর দুর্বলতা বা ত্রুটি শণাক্ত করতে সক্ষম হন তাহলে এই বৃহৎ প্রযুক্তি কোম্পানিটি আপনাকে একটি উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অর্থ পুরস্কার হিসেবে প্রদান করবে। নিরাপত্তা গবেষকরা এবং ইথিক্যাল হ্যাকাররা এই নিরাপত্তা ত্রুটিগুলো ইয়াহুতে রিপোর্ট করতে পারেন। আর তখন ইয়াহুর নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ দল যদি এটি উপযুক্ত বলে মনে করেন, তাহলে রিপোর্ট দাতাকে পুরস্কৃত করা হবে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://hackerone.com/yahoo
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ৯.৫ লাখ টাকা পর্যন্ত।

* স্ন্যাপচ্যাট
ত্রুটি ধরিয়ে দেয়া এবং ইথিক্যাল হ্যাকিং এর জন্য জনপ্রিয় অ্যাপ্ স্ন্যাপচ্যাট এর আর্থিক প্রণোদনার বার্ষিক প্রোগ্রামটি সব সময়ই চালু থাকে। স্ন্যাপচ্যাট এখন পর্যন্ত ইথিক্যাল হ্যাকারদের ১৭০,০০০ ডলার পরিশোধ করেছে।

কিভাবে নিজের দাবি তুলে ধরবেন: https://hackerone.com/snapchat
আপনি এক্ষেত্রে কত টাকা আয় করতে পারবেন: ৯.৫ লাখ টাকা পর্যন্ত।

তথ্যসূত্র: গ্যাজেটস নাউ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × five =