১০ লাখ ৬৪ হাজার রোহিঙ্গার বায়োমেট্রিক নিবন্ধন

কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ১২টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিকদের সরকারি ব্যবস্থাপনায় চারটি ক্যাম্পের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন কাজ এগিয়ে চলছে।

রোববার বিকেল ৫টা পর্যন্ত বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে মোট ১০ লাখ ৬৪ হাজার ২৭৯ জনের নিবন্ধন করা হয়েছে। সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে জানানো হয়েছে, আজ কুতুপালং ক্যাম্পে ৩০৪ জন পুরুষ, ৪শ’ জন নারী মিলে ৭০৪ জন, নোয়াপাড়া ক্যাম্পে ৯৯ জন পুরুষ, ১১৯ জন নারী মিলে ২১৮ জন, থাইংখালী ক্যাম্পে ১৫০ জন পুরুষ, ১৮৭ জন নারী মিলে ৩৩৭ জন, বালুখালী ক্যাম্পে ১৯৯ জন পুরুষ, ২৩৯ জন নারী মিলে ৪৩৮ জন এবং পুরো দিনে চারটি কেন্দ্রে মোট ১ হাজার ৬৯৭ জনের বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করা হয়েছে।

সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক আজ পর্যন্ত ৩৬ হাজার ৩৭৩ জন এতিম শিশু শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৭ হাজার ৩৯৫ জন ছেলে এবং ১৮ হাজার ৯৭৮ জন মেয়ে। বাবা-মা কেউ নেই এমন এতিম শিশুর সংখ্যা ৭ হাজার ৭৭১ জন।

উল্লেখ্য, কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের (আরআরআরসি) রিপোর্ট মোতাবেক ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমারের নাগরিক সংখ্যা ৬ লাখ ৮৯ হাজার ৪৯০ জন। অনুপ্রবেশ অব্যাহত থাকায় এ সংখ্যা বাড়ছে। ২৫ আগস্ট ২০১৭ এর পূর্বে আগত মিয়ানমারের নাগরিকের সংখ্যা ২ লাখ ৪ হাজার ৬০ জন ছিল।

প্রসঙ্গত, পাসপোর্ট অধিদপ্তর এ নিবন্ধনের কাজ বাস্তবায়ন করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × four =