সামান্য ভুলে মনোনয়নপত্র বাতিল না করার নির্দেশ

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সামান্য ভুলের জন্য মনোনয়নপত্র বাতিল না করতে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

শনিবার এ সংক্রান্ত এক পরিপত্রে বলা হয়েছে, ‘যদি বাছাইয়ের সময় এমন কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি নজরে আসে যা তাৎক্ষণিকভাবে সংশোধন সম্ভব, তা হলে মনোনয়নপত্র দাখিলকারীর দ্বারা তা সংশোধন করিয়ে নিতে হবে।’

পরিপত্রে বলা হয়, ছোটখাটো ত্রুটির জন্য কোনো মনোনয়নপত্র বাতিল করা যাবে না। কোন প্রার্থীর একটি মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ার কারণে ঐ প্রার্থীর অন্য কোন বৈধ মনোনয়নপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে না। অর্থাৎ শুধু একটি মনোনয়নপত্র বৈধ হলেই তার প্রার্থীতা অটুট থাকবে।

যদি কোন প্রার্থী একাধিক মনোনয়নপত্র দাখিল করেন তবে বাছাইয়ের সময় একটি মনোনয়নপত্র বৈধ পাওয়া গেলে অন্যগুলো বাছাইয়ের প্রয়োজন হবে না। মনোনয়নপত্র গ্রহণ অথবা বাতিল প্রসঙ্গে রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্ত মনোনয়নপত্রের নির্দিষ্ট স্থানে লিপিবদ্ধ করতে হবে।

এদিকে সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের ১২ নভেম্বরের মধ্যে সব ধরনের সরকারি বিল পরিশোধ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে আজ চিঠি পাঠিয়েছে ইসি। প্রার্থীদের টেলিফোন, বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানিসহ অন্যান্য পরিষেবা বিল এই সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। অন্যথায় তিনি প্রার্থী হতে পারবেন না।

প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতা ও অযোগ্যতা সংক্রান্ত পরিপত্রে বলা হয়েছে, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সাত দিন আগে এসব বিল পরিশোধ করতে হবে। অর্থাৎ যেহেতু মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১৯ নভেম্বর। সে হিসেবে প্রার্থী হতে হলে ১২ নভেম্বরের মধ্যে এসব বিল পরিশোধ করতে হবে।

সেখানে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, কৃষি কাজের জন্য গৃহিত ক্ষুদ্র কৃষি ঋণ ব্যতীত, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার তারিখের সাতদিন আগে ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে গৃহীত কোন ঋণ বা তার কোন কিস্তি পরিশোধে খেলাপি হলে প্রার্থী অযোগ্য হবেন।

আগামী ২৩ ডিসেম্বর রোববার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১৯ নভেম্বর সোমবার। বাছাই ২২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার। আর ৩০ নভেম্বর শুক্রবার প্রতীক বরাদ্দ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine − 2 =