শিগগির মন্ত্রিসভা ছোট হবে : কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, শিগগিরই মন্ত্রিসভার আকার ছোট হয়ে যাবে।

রোববার দুপুরে রাজধানীর ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আর ১৫-২০ দিন পরেই নির্বাচন কমিশন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে। সিডিউল ঘোষণা মানেই ক্যাম্পেইন শুরু। খুব শিগগিরই মন্ত্রিসভার কর্মের ধরন পাল্টে যাবে, মন্ত্রিসভার আকার ছোট হয়ে যাবে। মন্ত্রিসভার আকার ছোট হলে সেখানে আমি থাকব কি না, সেটা প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ জানেন না। কারা সেই মন্ত্রিসভায় থাকছেন, এটা প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ বলতে পারবেন না। তবে এই সরকারই থাকবে। সেই মন্ত্রিসভায় কারা কারা থাকছেন, সেটা প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেবেন।’

নিরাপত্তার কারণে সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ পুলিশ স্থগিত করলেও ওবায়দুল কাদের বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, সমাবেশের অনুমতির ব্যাপারে ইঙ্গিত পেয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। ইতিমধ্যে পুলিশ অনুমতি দিয়েছে। অফিশিয়াল চিঠি না পাওয়ার আগ পর্যন্ত ঐক্যফ্রন্ট নেতারা অহেতুক নাটক করবেন, এটা তাদের পুরনো অভ্যাস।

তিনি আরো বলেন, ‌‘সিলেটে বড় বড় নেতারা যাবেন, নিরাপত্তার বিষয়টি পুলিশ একটু খতিয়ে দেখে। অলরেডি পুলিশ তাদের অনুমতি দিয়ে দিয়েছে। আমার তো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা হয়েছে। তিনি আমাকে বলেছেন যে, সভা-সমাবেশ যেখানেই করতে চান, এ ব্যাপারে কোনো বাধা-নিষেধ থাকবে না, থাকার কথাও নয়।’

নির্বাচন কমিশন বিভক্ত হয়ে গেছে- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তিনি (ফখরুল ইসলাম আলমগীর) কি ভুলে গেছেন যে, নির্বাচন কমিশন পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট? প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে আরো চারজন কমিশনার আছেন। একজন কমিশনার কোনো ইস্যুতে যদি ভিন্নমত পোষণ করেন অথবা নোট অব ডিসেন্ট দেন, এটা তো গণতন্ত্রের বিউটি। সেখানেও ইন্টারনাল ডেমোক্রেসি কাজ করছে, সেটাই আমরা মনে করব। এটাকে নিয়ে বিভক্তির যে অভিযোগ তিনি (ফখরুল ইসলাম) তুলেছেন, এটা সম্পূর্ণই কাল্পনিক ও হাস্যকর ব্যাপার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 18 =