রায় শেষে কাশিমপুর কারাগারে আসামিরা

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণার পর ঢাকার আদালত থেকে ৩১ আসামিকে ফের গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

বুধবার বিকেল ৩টার দিকে আসামিরা কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়ে পৌঁছায়। এর আগে সকালে ওই ৩১ আসামিকে ঢাকায় আদালতে পাঠানো হয়েছিল।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ ও কারাগার-২ এর সিনিয়র জেল সুপার (ভারপ্রাপ্ত) সুব্রত কুমার বালা জানান, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ১৪ জন আসামিকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ ও কারাগার-২ থেকে আদালতে পাঠানো হয়। রায় ঘোষণার পর বিকেল ৩টার দিকে তাদের ফের কারাগারে নিয়ে আসা হয়েছে।

কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারের জেলার বিকাশ রায়হান জানান, ওই গ্রেনেড হামলা মামলার ১৭ আসামিকে সকালে এ কারাগার থেকে ঢাকায় আদালতে পাঠানো হয়েছিল। রায় ঘোষণা শেষে তাদের বিকেল ৩টার দিকে ফের কারাগারে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ১৪ বছর আগে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীবিরোধী সমাবেশে নৃশংস গ্রেনেড হামলার ঘটনায় বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ডের রায় এসেছে আদালতে।

খালেদা জিয়ার বড় ছেলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১৯ জনকে দেওয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

এ ছাড়া এ মামলার আসামি ১১ সরকারি কর্মকর্তাকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন বুধবার সকালে আলোচিত ওই ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনের দুই মামলায় এই রায় ঘোষণা করেন। এর আগে কারাগারে থাকা ৩১ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়।

২০০৪ সালের ২১ অগাস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী শোভাযাত্রায় গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমানসহ ২৪ জন নিহত হন; আহত হন কয়েকশ নেতাকর্মী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 + fourteen =