হাইতিতে ৫.৯ মাত্রার ভূমিকম্পে নিহত কমপক্ষে ১১

হাইতিতে ৫.৯ মাত্রার ভূমিকম্পে কমপক্ষে ১১ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরো অনেকে।

স্থানীয় সময় শনিবার রাত ৮টা ১১ মিনিটে হাইতির বন্দর পোর্ট-ডি-পেইক্স থেকে ২০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে দেশের সবচেয়ে উত্তরে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

হাইতি সরকারের মুখপাত্র এডি জ্যাকসন অ্যালেক্সিস সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানান, ভূমিকম্পে নর্ড-ওউয়েস্ট বিভাগের রাজধানী পোর্ট-ডি-পেইক্সে সাতজন নিহত হয়েছেন। আর অন্য চারজন নিহত হয়েছেন গ্রস-মর্ন শহরে।

পুরো দেশব্যাপী অনুভূত হওয়া ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ১১.৭ কিলোমিটার গভীরে।

ভূমিকম্পে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পোর্ট-ডি-পেইক্স, গ্রস মর্ন, চ্যানসলমে ও তরতুগা দ্বীপ। এসব এলাকায় অনেক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

হাইতির লে ন্যুভেলিস্তে নামের সংবাদপত্র জানিয়েছে, গ্রস মর্নে একটি অডিটোরিয়াম ধসে পড়ে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ভূমিকম্পে প্লাইস্যান্সের একটি চার্চের সামনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ও চার্চের সামনের একটি বাড়ি ধসে পড়েছে।

শনিবারের ভূমিকম্পের পর হাইতির উত্তরাঞ্চলের লোকজন আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। প্রেসিডেন্ট জোভেনেল মইজ ওই এলাকার বাসিন্দাদের শান্ত থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন। জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে এমনিতেই পদত্যাগের দাবির মুখে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট মইজ।

হাইতিতে ২০১০ সালে পোর্ট-অব-প্রিন্সে ৭ মাত্রার ভূমিকম্পের পর শনিবারেরটি এ পর্যন্ত সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প। ২০১০ সালের ভূমিকম্পে দেশটিতে প্রায় ১ লাখ ৬০ হাজার লোক নিহত হয়।

তথ্য : আল জাজিরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + 1 =