যুক্তরাষ্ট্রে বিচারপতি নিয়োগের প্রতিবাদে বিক্ষোভ, গ্রেপ্তার ৩০০

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির পদের জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোনয়ন প্রাপ্ত প্রার্থী বিচারক ব্রেট ক্যাভ্যানোর নিয়োগ চূড়ান্ত হওয়ার ইঙ্গিত পাওয়ার পর ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। বৃহস্পতিবার তিন শতাধিক বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সুপ্রিম কোর্টে গত ৩১ জুলাই বিচারপতি এন্থনি কেনেডি অবসরে যাওয়ার পর তার শূন্য পদের জন্য ব্রেট ক্যাভানোকে বেছে নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তবে মনোনয়ন ঘোষণার পরই ক্যাভানোর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন তিন নারী। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ক্যাভানোর বিরুদ্ধে এফবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেয় হোয়াইট হাউজ। বৃহস্পতিবার রিপাবলিকানরা জানিয়েছে, ক্যাভানোর বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য নয় বলে জানিয়েছে এফবিআই। তবে ডেমোক্র্যাটদের অভিযোগ, পাঁচদিনের এই তদন্ত ‘অসম্পূর্ণ’। আর এই স্বল্প সময় বেধে দিয়েছিল হোয়াইট হাউজ। শুক্রবার ক্যাভানোর নিয়োগের বিষয়ে সিনেটে ভোট প্রক্রিয়া শুরুর কথা। বৃহস্পতিবার রিপাবলিকানদের ইতিবাচক ইঙ্গিতের পর ধারণা করা হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আদালতে ক্যাভানোর আজীবন নিয়োগ চূড়ান্ত হচ্ছে।

ক্যাভানোর নিয়োগ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে রাজধানী ওয়াশিংটনে বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ করেছে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী। এদের অধিকাংশই নারী। তারা ক্যাপিটল হিলে এসে মিলিত হয় এবং সুপ্রিম কোর্টের বাইরে মিছিল করে। এসময় তারা ‘ক্যাভানোকে যেতে হবে’ বলে স্লোগান দেয়।বিক্ষোভকারীরা সিনেট দপ্তরের একটি ভবনে উঠে যায় এবং সেখানে বসে পড়ে। সেখান থেকে তারা সরতে অস্বীকৃতি জানালে পুলিশ ৩০২ জনকে গ্রেপ্তার করে। এদের মধ্যে কমেডিয়ান অ্যামি স্কুমার ও মডেল এমিলি রাতাজোকোস্কি রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 19 =