ফিরিয়ে নেওয়া হবে না সু চির নোবেল পদক

শান্তিতে নোবেল জয়ী মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দরের নেত্রী এবং স্টেট কাউন্সিলর সু চির নোবেল শান্তিপদক ফিরিয়ে নেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে নোবেল ফাউন্ডেশন। শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নোবেল ফাউন্ডেশনের প্রধান লার্স হেইকেনস্টেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর নিপীড়ন, নির্যাতন ও গণহত্যার মুখে সু চির নীরব ভূমিকার জন্য বিভিন্ন সংস্থা সু চির নোবেল পদক ফিরিয়ে নেওয়ার দাবি জানিয়েছিল। গত সপ্তাহে সু চির কানাডার সম্মানজনক নাগরিকত্ব ফিরিয়ে নিতে দেশটির পার্লামেন্টের নিম্মকক্ষে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। এর আগে অক্সফোর্ডসহ ইংল্যান্ডের বেশ কয়েকটি নগর কর্তৃপক্ষ সু চিকে দেওয়া সম্মাননা প্রত্যাহার করে নিয়েছিল।

মিয়ানমারের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের স্বীকৃতিস্বরুপ ১৯৯১ সালে সু চিকে শান্তিতে নোবেল সম্মাননা দেওয়া হয়েছিল।

লার্স হেইকেনস্টেন জানান, পদক দেওয়ার পর কোনো ঘটনা ঘটলে সেই পরিপ্রেক্ষিতে পদক ফিরিয়ে নেওয়া অর্থহীন।

তিনি বলেন, আমরা দেখেছি তিনি মিয়ানমারে যা করেছেন তা অনেক প্রশ্ন দাঁড় করিয়েছে এবং আমরা মানবাধিকারের পক্ষে, সেটাই আমাদের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মূল্যবোধ।’

নোবেল ফাউন্ডেশন প্রধান বলেন, ‘তাই অবশ্যই যে প্রেক্ষাপটের জন্য তিনি দায়ী, তা অনুশোচনীয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 + eight =