বিপিএলে আগের দলেই মাশরাফি-সাকিব-তামিম-মাহমুদউল্লাহ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ‘প্লেয়ার ড্রাফট’ হবে আগামী ২৫ অক্টোবর। এর আগে প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি চারজন করে খেলোয়াড় আগের আসর থেকে ধরে রাখতে পারবে।

৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এসব খেলোয়াড়ের তালিকা বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে দেওয়ার কথা ছিল ফ্র্যাঞ্চাইজিদের। টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী সাত ফ্র্যাঞ্চাইজির ছয়টি নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই চারজন করে খেলোয়াড়ের তালিকা দিয়ে দিয়েছে।

চিটাগং ভাইকিংস বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে অংশগ্রহণ করতে অনিচ্ছুক! তাই এখন পর্যন্ত কোনো খেলোয়াড় তালিকা তারা পাঠায়নি। তবে বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, চিটাগং ভাইকিংসের ফ্র্যাঞ্চাইজি নিতে আগ্রহ দেখিয়েছে একাধিক ইনভেস্টর। তবে শেষ পর্যন্ত কী হবে, তা জানা যাবে কিছুদিনের মধ্যেই।

বাকি ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি নিজেদের মতো করে দল গোছানো শুরু করেছে। খেলোয়াড় ধরে রাখার (রিটেইন) ক্ষেত্রে ফ্র্যাঞ্চাইজিরা দেশিদের ওপরই আস্থা রেখেছে। জানা গেছে, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোহাম্মদ মিথুন, রুবেল হোসেন ও নাজমুল ইসলাম অপুকে ধরে রেখেছে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও শোয়েব মালিককে রেখে দিয়েছে। লিটন কুমার দাসকে ছেড়ে দিয়েছে তারা। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজির ইচ্ছা প্লেয়ার ড্রাফট থেকে লিটনকে দলে নেওয়া।

ঢাকা ডায়নামাইটস সাকিব আল হাসানকে রেখেছে। তার সঙ্গে আছেন পেসার আবু হায়দার রনি। এ ছাড়া বাকি দুজনের নাম নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বাকি দুজন হতে পারেন এভিন লুইস ও সুনীল নারিন। খুলনা টাইটান্সের চার খেলোয়াড় হলেন- মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, কার্লোস ব্রাফেট, আরিফুল হক ও নাজমুল হোসেন শান্ত।

বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী কিংস মুশফিকুর রহিমকে ছেড়ে দিতে পারে। তাদের ধরে রাখা খেলোয়াড় তালিকায় নেই মুশফিকের নাম। তারা মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মুমিনুল হককে ধরে রেখেছে। মুশফিককে দলে নিতে আগ্রহ দেখিয়েছে সিলেট সিক্সার্স। তারা রেখে দিয়েছে সাব্বির রহমান ও নাসির হোসেনকে।

ড্রাফটের বাইরে থেকে প্রতিটি দল দুজন করে খেলোয়াড় নিতে পারবে। বাকিদের ড্রাফট থেকে কিনতে হবে।

গত ২৯ জুলাই সিদ্ধান্ত হয়, ৫ জানুয়ারি মাঠে গড়াবে বিপিএলের ষষ্ঠ আসর। ৩৫ দিনের টুর্নামেন্টের পর্দা নামবে ৮ ফেব্রুয়ারি। একই সময়ে হবে বিগ ব্যাশের অষ্টম আসর। এ ছাড়া বছরের শুরুতেই রয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ব্যস্ত সূচি।বিপিএলে তাই মানসম্মত বিদেশি ক্রিকেটার না পাওয়ার জোর সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 3 =