স্তন ক্যানসারের ভিন্ন ধরনের ৯ উপসর্গ

স্তন ক্যানসারের সর্বাধিক কমন উপসর্গ হচ্ছে লাম্প বা বাম্প বা পিণ্ড। কিন্তু এ প্রতিবেদনে উল্লেখিত ৯টি উপসর্গও স্তন ক্যানসারের লক্ষণ হতে পারে, এদের কোনোটি লক্ষ্য করে থাকলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া উচিত।

* টোল
সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ফেসবুকে একটি মেডিক্যাল ঘটনা ভাইরাল হয়েছে: এক নারীর মধ্যে স্তন ক্যানসার নির্ণীত হয়েছে যার স্তন ক্যানসারের একটিমাত্র উপসর্গ ছিল এবং তা হচ্ছে স্তনে ছোট একটি টোল। তবে এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। বিশেষজ্ঞদের মতে, স্তনের টোল বা ডিম্পল স্তন ক্যানসারের অন্যতম উপসর্গ।

* ত্বকে চুলকানি
ভালোভাবে ফিট হয়নি এমন ব্রা, হিট র‍্যাশ, কন্টাক্ট ডার্মাটাইটিস অথবা অন্যান্য ত্বক সমস্যার কারণে আপনার ত্বক ইরিটেট হতে পারে, স্তনের ত্বকে ইরিটেশন স্তন ক্যানসারেরও একটি উপসর্গ হতে পারে। শিকাগোতে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয়েস কলেজ অব মেডিসিনের ক্লিনিক্যাল অবস্টেট্রিকস অ্যান্ড গাইনিকোলজির সহকারী অধ্যাপক জেসিকা শেফার্ড বলেন, ‘স্তনে অনাকাঙ্ক্ষিত লালতা, ফোলা, স্কিন ইরিটেশন, চুলকানি অথবা নতুন র‍্যাশ হলে অথবা কোনো র‍্যাশ দীর্ঘসময় থাকলে চিকিৎসক দ্বারা পরীক্ষা করান।’

* নিপল ডিসচার্জ
যদি আপনি আপনার শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ান বা গর্ভবতী হন, তাহলে স্তনের ডিসচার্জ বা ক্ষরণ নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই। কিন্তু অন্য নারীদের ক্ষেত্রে কয়েক প্রকার ডিসচার্জ চিকিৎসক দ্বারা পরীক্ষা করা উচিত। ডা. শেফার্ড বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে নিপলে ডিসচার্জ হওয়া, সবুজাভ বা হলুদাভ বা লাল ডিসচার্জ স্তন ক্যানসারের একটি উপসর্গ হতে পারে। বিশেষ করে যদি হঠাৎ ডিসচার্জ আরম্ভ হয়ে আবার বন্ধ হয়ে যায় এবং আবার ডিসচার্জ শুরু হয়ে আবারো বন্ধ হয়ে যাওয়া এবং এ চক্র অব্যাহত থাকলে।

* অস্বাভাবিক দাগ
কালো বা বাদামী বা অস্বাভাবিক দাগ বিরলক্ষেত্রে স্তন ক্যানসারের একটি আগ্রাসী ধরনের লক্ষণ হতে পারে, যাকে ইনফ্ল্যামেটরি ব্রেস্ট ক্যানসার বলে।

* লাল স্পট বা কালশিটে দাগ
ইনফ্ল্যামেটরি স্তন ক্যানসারের অন্য একটি লক্ষণ হচ্ছে, ত্বকের ওপর লাল স্পট অথবা কালশিটের মতো দাগ। যদি আপনার এসব ডেভেলপ হয় এবং স্বাভাবিক কালশিটের চেয়ে বেশি দিন থাকে, তাহলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া উচিত।

* নিপল পরিবর্তন
আপনার নিপলের আকার বা সাইজ বা বর্ণ সাধারণত পরিবর্তন হয় না, যদি না আপনি প্রেগন্যান্ট না হন। কিন্তু আপনার টিউমার হলেও নিপলের এসব পরিবর্তন হতে পারে। ডা. শেফার্ড বলেন, ‘নিপলের যেকোনো ধরনের পরিবর্তন লক্ষ্য করলে (যেমন- নিপল স্তনের ভেতর ঢুকে যাওয়া) স্তন ক্যানসারের জন্য স্ক্রিনিং করানো উচিত।’

* ত্বকের গঠন পরিবর্তন
বিশেষজ্ঞরা বলেন যে, স্তনের ত্বকের গঠন পরিবর্তন ইঙ্গিত দিতে পারে যে কিছু একটা ঠিক নেই। ডা. শেফার্ড বলেন, ‘স্তন ক্যানসার কখনো কখনো স্তনের ত্বকের গঠন পরিবর্তন করতে পারে।’ তিনি বলেন, ‘ত্বকের লাল সারফেস বা সারফেসে কমলার খোসার মতো গর্ত আছে কিনা লক্ষ্য করুন, এমনটা ঘটে- কারণ, ক্যানসার কোষ স্তনের ভেতর ছোট লসিকা নালীতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে স্তনের টিস্যুতে প্রদাহ হয়।’

* স্তনে ফোলা ও ব্যথা
মাসিক চক্রের সময় অথবা প্রেগন্যান্সির প্রথমাবস্থায় স্তনে ফোলা বা ব্যথা হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। এ কারণে নারীদের ভাবনায় আসে না যে, এটি স্তন ক্যানসারের উপসর্গ হতে পারে। ডা. শেফার্ড বলেন, ‘যদি কোনো স্তন বিশেষভাবে বড় হয়ে যায় বা ফুলে যায়, তাহলে পরীক্ষা করা উচিত। যদি কোনো লাম্প সারফেসের নিচে গভীরে থাকে, তাহলে আপনি এটি অনুভব নাও করতে পারেন, কিন্তু আপনার স্তন কিছুটা ফুলে যেতে পারে।’

* স্তনের আকার পরিবর্তন
ওজন বৃদ্ধি, মাসিক চক্র, প্রেগন্যান্সি অথবা ব্রেস্টফিডিং আপনার স্তনের আকার ও গঠনে প্রভাব ফেলতে পারে। কিন্তু এসব ছাড়া হঠাৎ করে আপনার স্তনের গঠন পরিবর্তন ক্যানসারের একটি লক্ষণ হতে পারে, এক্ষেত্রেও স্ক্রিনিং করানো উচিত।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 5 =