কীভাবে বুঝবেন আপনার শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি?

আপনি যদি যথেষ্ট পরিমাণ ডিম, মাছ, মাংস, বাদাম, দুধ এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার না খান তাহলে আপনার সার্বিক স্বাস্থ্যের উপর সেটা প্রভাব পড়বে। কয়েকটি লক্ষণ দেখে আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন আপনার শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি আছে।

আসুন জেনে নেয়া যাক কীভাবে বুঝবেন শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি আছে।

দুর্বল ও ক্ষুধার্ত বোধ করা:
নিয়মিত প্রোটিন নিলে আপনার শরীরে যথেষ্ট পরিমাণ শক্তি থাকবে এবং আপনি একটু পরপরই ক্ষুধার্ত বোধ করবেন না। প্রোটিন না নিলে এর উল্টোটা ঘটে।

ওজন কমাতে পারছেন না:
ওজন কমানো মানে খাবার কমিয়ে দেয়া না। আর প্রোটিন তো একদমই না। শরীরের চর্বি কমানোর জন্য নিয়মিত প্রোটিন গ্রহণের বিকল্প নেই। প্রোটিন যদি কম খান, তাহলে আপনি যতোই শরীরচর্চা অথবা ডায়েট করেন না কেন, ওজন কমাতে পারবেন না।

হারাচ্ছেন সাধের চুল:
সকাল বেলায় মাথায় হাত বুলাতে গিয়ে খেয়াল করছেন হাতের সাথে এক গোছা চুল বেরিয়ে আসছে। এরকম লক্ষণ দেখলে ধরেই নিন আপনি প্রোটিন স্বল্পতায় ভুগছেন।

ঘনঘন অসুস্থ হচ্ছেন:
যদি আপনি পরিমিত খাবার গ্রহণ না করেন তাহলে আপনি অসুস্থ হবেনই। আর প্রোটিন হচ্ছে প্রতিদিনকার সুষম খাবারের অন্যতম একটি খাদ্য উপাদান। যদি ঘন ঘন শারীরিক অসুস্থতা লেগেই থাকে তাহলে প্রোটিন স্বল্পতায় ভুগছেন।

পা ফেটে যায়:
প্রোটিন আপনার রক্তকণিকাগুলোর মধ্যে পর্যাপ্ত লবণ এবং পানি ধরে রাখতে সাহায্য করে। যদি প্রোটিন স্বল্পতা থাকে তাহলে ফ্লুইড পার্শ্ববর্তী টিস্যুগুলোতে ঢুকে যায়। হার্ভার্ড হেলথ পাবলিকেশনের বরাতে জানা যায়, এ কারণেই প্রোটিন স্বল্পতার জন্য অনেকের পা ফেটে যায়।

ত্বকের প্রদাহ:
প্রোটিন স্বল্পতার জন্য মাঝেমাঝে ত্বকের প্রদাহসহ চুলকানি ও এলার্জি হতে পারে। বিশেষ করে ত্বকের এ সমস্যাটি হয়ে থাকে আপনার উরু ও পশ্চাৎদেশে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen + nineteen =