‘সুশাসনের জন্য ভালো কাজের প্রতিযোগিতা করতে হবে’

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ভালো কজের প্রতিযোগিতা করতে হবে। ভালো কাজের প্রতিযোগিতা হলে দেশ এগিয়ে যাবে ও সর্বস্তরে সুশাসন নিশ্চিত করা যাবে।

সোমবার ‘শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান-২০১৮’ এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি অডিটোরিয়ামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ১৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে শুদ্ধাচার পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। পুরস্কার হিসেবে প্রত্যেককে সনদ ও মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থের চেক দেওয়া হয়। ২০১৭ সালে কাজের দক্ষতা, সততা, জনসেবার মানসিকতাসহ ১৯টি সূচকে ১০০ নাম্বারের মধ্যে সর্বচ্চো নাম্বারপ্রাপ্ত এ পুরস্কার পান। সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে সরকারি কর্মচারীদের উৎসাহিত করতে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

পুরস্কারপ্রাপ্তদের অভিন্দন জানিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দেশব্যাপী উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। দীর্ঘমেয়াদী প্রেক্ষিত পরিকল্পনা, পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়ন করে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় থেকে যেভাবে প্রজেক্ট পাঠানো হয় সেভাবেই অনুমোদন পায় না। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনাসহ জাতীয় পরিকল্পনা নীতির আলোকে এসব প্রজেক্ট যাচাইবাছাই করে চূড়ান্ত করে। দক্ষতা না থাকলে এ কাজ করা সম্ভব না।

পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো. জিয়াউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা কমিশনের বিভিন্ন বিভাগের সদস্য, বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) মহাপরিচালক ড. কে এ এস মুর্শিদ, জাতীয় পরিকল্পনা উন্নয়ন একাডেমির (এনএপিডি) মহাপরিচালক কামাল উদ্দিন তালুকদারসহ পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × one =